বিনোদন
সরকারি অর্থ আত্মসাৎ, কবি টোকন ঠাকুর গ্রেফতার
সরকারি অর্থ আত্মসাৎ, কবি টোকন ঠাকুর গ্রেফতার





নিজস্ব প্রতিবেদক
Monday, Oct 26, 2020, 1:54 am
Update: 26.10.2020, 2:03:16 am
 @palabadalnet

টোকন ঠাকুর গ্রেফতার- সংগৃহীত

টোকন ঠাকুর গ্রেফতার- সংগৃহীত

ঢাকা: কবি ও চলচ্চিত্র নির্মাতা টোকন ঠাকুরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীর কাঁটাবন এলাকা থেকে নিউমার্কেট থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

তার বিরুদ্ধে একটি মামলায় আদালতের পরোরায়ানা ছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে। 

নিউমার্কেট থানার ওসি সম কাইয়ুম বলেন, টোকন ঠাকুরের বিরুদ্ধে ঢাকার আদালতে একটি সিআর মামলা রয়েছে। এতে তিনি হাজিরা না দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে আদালত গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। সেই পরোয়ানা থানায় এলে আদালতের নির্দেশে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

কী অভিযোগে তার বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি হয়েছে জানতে চাইলে ওসি বলেন, পরোয়ানায় শুধু মামলার নম্বর, তারিখ ও নথি নম্বর থাকে। বিস্তারিত কিছু থাকে না। এজন্য তার বিরুদ্ধে দায়ের মামলার বিষয়ে জানা নেই। পুলিশ শুধু আদালতের নির্দেশ পালন করেছে এবং সোমবার টোকন ঠাকুরকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, কবি টোকন ঠাকুর 'কাঁটা' নামে একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য ২০১১-১২ অর্থবছরের সরকারি অনুদান পেয়েছিলেন। অনুদানের অর্থ নিয়ে ৯ মাসের মধ্যে ছবি মুক্তি দেওয়ার নিয়ম থাকলেও আট বছরেও তা সম্পন্ন করেননি তিনি।

ওই ঘটনায় তথ্য মন্ত্রণালয়ের সংশ্নিষ্ট শাখা ছবি নির্মাণ শেষ করতে কিংবা অর্থ ফেরত চেয়ে একাধিকবার তাকে চিঠি পাঠিয়েও কোনও উত্তর পায়নি। এরপর তার বিরুদ্ধে ২০১৬ সালে মামলা দায়ের করে তথ্য মন্ত্রণালয়। সেই মামলাতেই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়।

এদিকে টোকন ঠাকুরকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে উত্তাল ফেসবুক। সিনেপ্রেমীরা টোকন ঠাকুরের সঙ্গে এমন আচরণের নিন্দা জানিয়েছেন। টোকন ঠাকুরের দ্রুত জামিন চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়েছেন নন্দিত চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীও।  

ফারুকী বলেন, ‘ব্যাংকের হাজার হাজার কোটি টাকা মেরে দেয়ার পরও কত মানুষ রাজার হালে ঘোরে, আর সামান্য কয় লাখ টাকার একটা অনুদানের সিনেমা টাইমলি না দেয়াতে আমার বন্ধু কবি টোকন ঠাকুরকে গ্রেফতার করা হইছে! আমি বলছি না, অনুদানের টাকার ছবি টাইমলি না দেয়া উচিত কাজ! কিন্তু একটা ছবি বানাতে গিয়ে কত রকম ঘটনা-দুর্ঘটনা ঘটতে পারে! তাই আশা করি তথ্য মন্ত্রণালয়ের ভাই-বোনেরা ব্যাপারটা আন্তরিকতার সঙ্গে দেখে একটা সুরাহা করবেন!এবং আদালতও ব্যাপারটা আন্তরিকভাবে দেখবেন যাতে টোকনের জামিন দ্রুত নিশ্চিত হয়! আপাতত এইটুকুই বলার!’

চলচ্চিত্র নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী বলেন, ‘কবি টোকন ঠাকুর ছবিটা নির্মাণ করতে পারছেন না হয়তো অর্থের অভাবে, তা ছাড়া কবি মানুষ সিনেমা নির্মাণের ভঙ্গি হয়তো বুঝতে পারেন নাই, তাই দয়া করে ওনাকে গ্রেফতার করে বিপদে না ফেলে, সবাই মিলে ওনার সিনেমাটা শেষ করার চেষ্টা করি। মুক্তি দেয়া হোক আমাদের কবিকে।’

কবি সরকার আমিন লিখেছেন, ‘‘দিন-পনেরো আগে টোকন এসেছিলেন। টগবগ করছে। ‘আমিন ভাই, শেষ করে আনছি। মুভিটা এবার মুক্তি পেতে যাচ্ছে।’ খুশি হইলাম শুনে। বললো, প্রচুর ক্যারেক্টার। প্রচুর খরচ। আর্টিস্টরা প্রায় মাগনা কাজ করেছেন। পুরোনো ঢাকায় কয়েক মাস থেকে শুটিং করতে হয়েছে। আজ শুনলাম টোকন গ্রেফতার হয়ে গেছে। অভিযোগ-সরকারি টাকা নিয়ে ঠিক টাইমে মুভি জমা দেয় নাই। যদি এটাই একমাত্র অভিযোগ হয়ে থাকে তবে তা দুঃখজনক। দুঃখ পেয়েছি-কারণ টোকন চেষ্টা করছিল কাজটা শেষ করতে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের কাছে আবেদন জানাচ্ছি, গ্রেফতার না, ওকে মুভিটা বানাতে হেল্প করুন।’’

চলচ্চিত্র নির্মাতা মাহমুদ দিদার লিখেছেন, ‘সিনেমা জীবন খায়! জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সময় ফুরায়ে যায় এই দেশে একটা সিনেমা ভেবে, বানিয়ে শেষ করতে।  কি এমন টাকা!  তার আবার তছরুপের অভিযোগ। নির্মাতা, কবি টোকন ঠাকুরকে হেনস্তা করার তীব্র প্রতিবাদ জানাই। টোকনদা হেসেই বুঝিয়ে দিলো এই আস্পর্ধা অমার্জনীয়।’

পালাবদল/এমএম


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2020
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১, সিদ্ধেশ্বরী রোড, রমনা, ঢাকা-১২১৭
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১, সিদ্ধেশ্বরী রোড, রমনা, ঢাকা-১২১৭
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]