সারাবাংলা
কখনো ডিআইজি কখনো এসপি!
কখনো ডিআইজি কখনো এসপি!





কুমিল্লা ব্যুরো
Wednesday, Jan 15, 2020, 2:10 am
 @palabadalnet

ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তার পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার ফখরুদ্দিন মোহাম্মদ আজাদ ও তার সহযোগী রুবেল সর্দার। ছবি: সংগৃহীত

ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তার পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার ফখরুদ্দিন মোহাম্মদ আজাদ ও তার সহযোগী রুবেল সর্দার। ছবি: সংগৃহীত

কুমিল্লা: সাব ইন্সপেক্টর পদে শিক্ষানবিশ অবস্থাতেই এক লাখ ২৫ হাজার টাকা ঘুষ নেওয়ার দায়ে ১৯৯১ সালে বরখাস্ত হয় ফখরুদ্দিন মোহাম্মদ আজাদ। ২০০০ সালে ডিবি পরিচয়ে ছিনতাইয়ের সময় ডিএমপির ডিবি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয় সে। সাত মাস হাজতবাস শেষে স্থায়ীভাবে চাকরিচ্যুত হয়। তবে এরপর থেকে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পরিচয়ে প্রতারণার মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে সে।

ডিআইজি ও এসপিসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে ফখরুদ্দিন মোহাম্মদ আজাদ নামে সেই প্রতারককে গ্রেফতার করেছে কুমিল্লা পুলিশ। ভুক্তভোগীদের অভিযোগে গত সোমবার রাতে রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আজাদ কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার হরিচর ইউনিয়নের বাকুই গ্রামের মৃত আবদুল হামিদের ছেলে। সে রাজধানীর খিলগাঁও এলাকায় আনসার কোয়ার্টারের পাশের আবাসিক এলাকায় থাকত। অভিযানে তার বাসা থেকে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পোশাক পরিহিত ছবি, ভুয়া সিল ও অফিসিয়াল ডকুমেন্ট জব্দ করা হয়েছে। তার গাড়িচালক ও সহযোগী শরীয়তপুরের বাসিন্দা রুবেল সর্দারকে গ্রেফতার এবং ব্যবহূত প্রাইভেটকারও জব্দ করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার কুমিল্লা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলনে বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আজাদ জানিয়েছে, কখনও ডিআইজি, পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত সুলিশ সুপার আবার কখনও সহকারী পুলিশ সুপার পরিচয় দিত আজাদ। মানুষের দুর্বলতার সুযোগ কাজে লাগিয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার পরিচয় দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ওই প্রতারক। সর্বশেষ কনস্টেবল নিয়োগে কুমিল্লায় চাকরি দেওয়ার কথা বলে আশফাক আহমেদ নামে এক প্রার্থীর বাবাকে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি স্বাক্ষরিত নকল চিঠি দেখিয়ে ১১ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। ওই নিয়োগ পরীক্ষায় আজাদের প্রতারণার শিকার হয়েছেন রেজাউল করিম, মো. আনোয়ারুল ইসলামসহ একাধিক ব্যক্তি।

এদিকে, আজাদের আটকের খবর পেয়ে প্রতারিতরা পুলিশ সুপার অফিসে যোগাযোগ শুরু করেছেন। এ পর্যন্ত অন্তত ১১ জন তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের প্রতারণার অভিযোগ করেছেন। পুলিশে চাকরি দেওয়া ও বদলিসহ নানা প্রতিশ্রুতিতে তাদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছে আজাদ। এসব অভিযোগে আজাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জেলা পুলিশের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা দক্ষিণের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন, ডিএসবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজিম উল আহসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর সালেহীন ইমন প্রমুখ।

পালাবদল/এমএম



  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]