প্রতিরক্ষা
ভারতীয় সেনাবাহিনীতে দুর্নীতি: ড্রোন কেনা নিয়ে কোর্ট মার্শালে সাবেক দুই মেজর জেনারেল
ভারতীয় সেনাবাহিনীতে দুর্নীতি: ড্রোন কেনা নিয়ে কোর্ট মার্শালে সাবেক দুই মেজর জেনারেল





ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস
Saturday, Dec 7, 2019, 4:00 pm
 @palabadalnet

নয়া দিল্লি: ২০১৫-১৬ মেয়াদে ভারতীয় সেনা কমান্ডারদের বিশেষ আর্থিক ক্ষমতা তহবিল ব্যবহার করে ৬৭টি কোয়াডকপ্টার (ডে/নাইট) মিডিয়াম রেঞ্জ সরঞ্জাম কেনার জন্য ইস্টার্ন কমান্ড ২০১৬ সালের এপ্রিলে একটি রিকোয়েস্ট ফর প্রপোজাল (আরএফপি) আহ্বান করেছিলো।

সেই ক্রয় প্রক্রিয়ায় অনিয়ম ধরা পড়ায় এখন কোর্ট মার্শালের মুখোমুখি হয়েছেন ইস্টার্ন কমান্ডের দুই অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল। বৃহস্পতিবার থেকে সেনা আদালতে তাদের বিচার শুরু হয়েছে।

কলকাতার কাছে কাঁচরাপাড়া সেনানিবাসে মেজর জেনারেল বি চক্রবর্তী (অব:) ও মেজর জেনারেল অনুপ কুমার (অব:)-এর বিচার চলছে। যখন ড্রোন চুক্তিটি সই হয় তখন দুজনেই কলকাতায় ইস্টার্ন কমান্ডের হেডকোয়ার্টারে কাজ করছিলেন।

মেজর জেনারেল চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে সেনা আইনের ৬৩ ধারায় (সেনা শৃঙ্খলা ভঙ্গ) পাঁচ দফা, ৫২(এফ) (জালিয়াতি) ধারায় তিনটি ও ৫৭ ধারায় (সরকারি নথিতে মিথ্যা বলা) দুটি অভিযোগ আনা হয়েছে।

অন্যদিকে মেজর জেনারেল কুমারের বিরুদ্ধে ৫২(এফ) ধারায় চারটি ও ৬৩ নং ধারায় চারটি অভিযোগ আনা হয়েছে।

দুজন অফিসারই তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো অস্বীকার করে নিজ নিজ কাজকে সমর্থন করেছেন।

কোর্ট মার্শালে সভাপতিত্ব করছেন লে. জেনারেল তুমুল ভার্মা। তিনি ১০১ আরিয়া’র জিওসি। বিচারক বেঞ্চে সদস্য হিসেবে আরো পাঁচ মেজর জেনারেল রয়েছেন।

এই চুক্তির বিভিন্ন ত্রুটির সঙ্গে জড়িত আরো সাত অফিসারকে কারণ দর্শাও নোটিশ দেয়া হয়েছে। এদের মধ্যে দুইজন ব্রিগেডিয়ার, তিনজন কর্নেল ও দুইজন লে. কর্নেল রয়েছেন।

প্রকাশিত নথিতে দেখা যায় ৬৭টি কোয়াডকপ্টার কেনার জন্য প্রায় ৬ কোটি রুপির অনিয়ম করা হয়েছে।

একসেপটেনস টেস্ট চালানোর সময় সরঞ্জামে ত্রুটি ধরা পড়লে সেনাবহিনী সরবরাহ আদেশ বাতিল করে। এই সংগ্রহ প্রক্রিয়া নিয়ে ইতোপূর্বে রাঁচিতে ১৭ কোরের সদর দফতরে কোর্ট অব ইনকয়ারি হয়।

এক কর্মকর্তা জানান যে অবসরপ্রাপ্ত অফিসারদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের বিধান না থাকায় কোর্ট মার্শালের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তদন্তে কোন আর্থিক অনিয়ম পাওয়া যায়নি কিন্তু পদ্ধতিগত অনিয়ম পাওয়া গেছে। তাছাড়া শেষ পর্যন্ত ড্রোনগুলো কেনা হয়নি।

দরপত্র প্রক্রিয়ায় অংশ নিয়ে মুম্বাইভিত্তিক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান শিওর সেফটি প্রাইভেট লি. কার্যাদেশ লাভ করেছিল।

পালাবদল/এসএম


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]