বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ১ কার্তিক ১৪২৬
 
জাতীয়
বাক-স্বাধীনতার জন্য কাউকে হত্যা করা উচিত নয়: জাতিসংঘ
বাক-স্বাধীনতার জন্য কাউকে হত্যা করা উচিত নয়: জাতিসংঘ





ইউএনবি
Wednesday, Oct 9, 2019, 9:29 pm
Update: 09.10.2019, 9:30:55 pm
 @palabadalnet

ঢাকা: বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে জাতিসংঘ বলছে, মত প্রকাশের স্বাধীনতা একটি মৌলিক অধিকার।

বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক আজ (৯ অক্টোবর) এক বিবৃতি জানান, “মত প্রকাশের স্বাধীনতা একটি মৌলিক অধিকার। এর চর্চার জন্য কাউকে হয়রানি, নির্যাতন ও হত্যা করা উচিত নয়।”

বিবৃতিতে সন্দেহভাজন হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারে কর্তৃপক্ষের নেওয়া উদ্যোগের কথা উল্লেখ করে আন্তর্জাতিক সংস্থাটি স্বাধীন তদন্তের উপর জোর দিয়েছে। যার ফলে ‘সুষ্ঠু প্রক্রিয়ায় বিচার’ ও ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ নিশ্চিত হবে।

এতে আরো বলা হয় কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশে ক্যাম্পাস কেন্দ্রিক সহিংসতা বেড়েছে এবং এতে অনেকে প্রাণ হারিয়েছে। এসব ঘটনায় দায়ীদের দৃশ্যত দায়মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে বুয়েট শিক্ষার্থী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিজেদের ভ্যারিফাইড ফেসবুক পেজে এক বার্তায় ঢাকার ব্রিটিশ হাইকমিশন শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে।

বার্তায় বলা হয়, “বুয়েটের ঘটনায় হতবাক ও দুঃখিত। যুক্তরাজ্য নিরবচ্ছিন্নভাবে বাকস্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, মানবাধিকার এবং আইনের শাসনের পক্ষে।”

প্রসঙ্গত, ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের মারধরের পর বুয়েটের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে ৭ অক্টোবর ভোররাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে বাংলা হলের সিঁড়িতে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অপরদিকে আজ (৯ অক্টোবর) রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পো হত্যাকাণ্ডের এ ঘটনা দ্রুত তদন্তের মাধ্যমে ন্যায় বিচারের আহ্বান জানান।

তিনি এ ঘটনাটিকে উদ্বেগজনক ও ভয়াবহ হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, দুটি সন্তানের পিতা-মাতা হিসেবে তিনি ঘটনাটি জানার পরে আতঙ্কিত।

বিস মিলনায়তনে ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ডিক্যাব) আয়োজিত ‘ডিক্যাব টক’ অনুষ্ঠানে মিয়া সেপ্পো আরও বলেন, “ক্যাম্পাস অবশ্যই নিরাপদ হওয়া উচিত।”

উল্লেখ্য, ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিরোধিতা করে শনিবার বিকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন ফাহাদ। এর জের ধরে রোববার রাতে শেরেবাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে তাকে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে তার লাশ সিঁড়িতে ফেলে রাখা হয়।

এ ঘটনায় আবরারের বাবা ১৯ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের ১১ জনকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় কমিটি।

পালাবদল/এসএ



  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]