শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
 
বিনোদন
ভারতীয় ফিল্ম ‘পানিপথ’ নিয়ে আফগানিস্তানে ক্ষোভ, দিল্লিকে কাবুলের চিঠি
ভারতীয় ফিল্ম ‘পানিপথ’ নিয়ে আফগানিস্তানে ক্ষোভ, দিল্লিকে কাবুলের চিঠি





দ্য প্রিন্ট
Friday, Nov 8, 2019, 4:25 pm
 @palabadalnet

ভারতের চলচ্চিত্র পরিচালক আশুতোষ গোয়ারিকরের পরবর্তী বলিউড ছবি পানিপথে সাবেক আফগান সম্রাট আহমেদ শাহ আবদালিকে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে – এমন আশঙ্কা থেকে নয়াদিল্লীর কাছে উদ্বেগ জানিয়েছে আফগানিস্তান। এই ইস্যু নিয়ে ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভাদেকারের সাথে বৈঠক করারও চেষ্টা করছে তারা।

১৭৬১ সালে মারাঠা আর দুররানি সাম্রাজ্যের মধ্যে যে তৃতীয় পানিপথের যুদ্ধ হয়েছিল, সেটি নিয়ে নির্মিত এই ছবিতে অভিনয় করেছেন সঞ্জয় দত্ত ও অর্জুন কাপুর। ওই যুদ্ধ ভারতীয় ইতিহাসের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা।
 
বুধবার ছবিটির ট্রেইলার মুক্তি পেয়েছে। এতে আধুনিক আফগানিস্তানের প্রতিষ্ঠাতা আবদালিকে নেতিবাচকভাবে বর্বর শাসক হিসেবে উপস্থাপন করায় সেটা নিয়ে আফগান নাগরিকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ৬ ডিসেম্বর এই ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

ট্রেইলার মুক্তির কয়েক ঘন্টার মধ্যেই নয়াদিল্লির আফগানিস্তান দূতাবাস থেকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে এটা নিয়ে চিঠি দেয়া হয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, “যেহেতু ছবিটিতে সাবেক আফগান সম্রাট আহমেদ শাহ আবদালির চরিত্র রয়েছে, তাই তাকে যেকোনো বিকৃত বা নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করা হলে সেটা আফগানদের মধ্যে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে এবং সেটা দুই দেশ ও জনগণের মধ্যকার আস্থা ও শৃঙ্খলাকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে”।

আফগানিস্তান থেকে সমালোচনা

পানিপথ ছবির ট্রেইলার মুক্তির পর থেকে ইউটিউবে এটি ২৫ মিলিয়ন বার দেখা হয়েছে এবং এখনও এটি দেখা হচ্ছে। ট্রেইলার মুক্তির পর থেকেই আফগানিস্তানের অনেকে এর বিরুদ্ধে সমালোচনা করেছেন এবং এখানে দুররানি সম্রাটকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে আশঙ্কা জানিয়েছে তারা। উল্লেখ্য, দুররানি সম্রাট আফগানদের কাছে শ্রদ্ধার পাত্র।

তাহির কাদেরিকে উদ্ধৃত করে আফগানিস্তানের পাঝওক আফগান নিউজ জানিয়েছে যে, তিনি বলেছেন ছবিটি এখনও মুক্তি পায়নি এবং এর বিষয়বস্তু নিয়ে এখনও সিদ্ধান্তে আসা যাচ্ছে না। তিনি আরও বলেন যে, দূতাবাস থেকে ভারতের কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে এবং আফগানিস্তানের উদ্বেগের বিষয়টি জানানো হয়েছে।

রিপোর্টে নয়া দিল্লির আফগানিস্তান দূতাবাসের সাংস্কৃতিক অ্যাটাশে আজমল আলামজাইকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, তিনি বলেছেন যে, পানিপথ ছবির ব্যাপারে তিনি দুই বছর আগে জানতে পারেন এবং এ ব্যাপারে তিনি তদন্ত শুরু করেছেন।

তিনি বলেছেন, “আমরা ছবির পরিচালককে ইমেইল করেছি যাতে তিনি ছবির দৃশ্যগুলো আমাদেরকে দেখান। কিন্তু তিনি সেটা করেননি। আমরা পরিচালকের সাথে বেশ কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছি”।

পালাবদল/এমএম


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]