সারাবাংলা
মিঠামইনে গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে একই পরিবারের ১০ জন দগ্ধ, ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক
মিঠামইনে গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে একই পরিবারের ১০ জন দগ্ধ, ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক





মো: আল আমিন, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি
Saturday, Oct 24, 2020, 9:29 pm
Update: 24.10.2020, 9:32:59 pm
 @palabadalnet

কিশোরগঞ্জ:  মিঠামইনে রান্না করার এলপি গ্যাস সিলিন্ডার থেকে ছড়িয়ে পড়া আগুনে নারী ও শিশুসহ একই পরিবারের ১০ জন দগ্ধ হয়েছে। দগ্ধদের মধ্যে অন্তত পাঁচজনের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে। শনিবার (২৪ অক্টোবর)  বিকেলে উপজেলার কাটখাল ইউনিয়নের কাটখাল হাজিপাড়া গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

কাটখাল ইউপি চেয়ারম্যান মো: তাজুল ইসলাম জানান,  আজ শনিবার বিকেলে হাজিপাড়ার দরিদ্র কৃষক আবদুসসালামের বাড়িতে রান্না করার সময় গ্যাসের পাইপের লিক থেকে গ্যাস পুরো ঘরে ছড়িয়ে পড়লে এ অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। 

 এতে আবদুস সালামের স্ত্রী শিফা বেগম (৬৫), তিন ছেলে কামাল (৩৫), আনোয়ার (৩২) ও জামাল (২৮), মেয়ে তাসলিমা (২৫), জুয়েনা (২০), তাসলিমার দুই শিশুকন্যা  উম্মে হানি (৩) উম্মে হাবিবা (৩ মাস) ও এবং আবদুস সালামের বড় ছেলে আবদুল আলীর মেয়ে পারভিন(১৫)ও তহুরা (১০) অগ্নিদগ্ধ হয়। অগ্নিদগ্ধ ১০ জনের মধ্যে পাঁচজনের  অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে। আহতদের প্রথমে বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে সেখান থেকে তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়। 

বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, তিনমাসের একটি শিশু ছাড়া বাকি সবার শরীরের ৭০ ভাগ পুড়ে গেছে। তাদের সবাইকে ঢাকা পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে শিফা বেগম, জামাল মিয়া ও উম্মেহানির অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ ছাড়া আরো দুইজনের অবস্থা গুরুতর। 

প্রত্যক্ষদর্শী কাটখাল উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি শামসুল হক রানা জানান, হাজিপুর গ্রামের আবদুস সালামের ঘরে রান্না করার সিলিন্ডারের পাইপে ছিদ্র ছিল। সেই ছিদ্র দিয়ে আগেই গ্যাস পুরো ঘরে ছড়িয়ে ছিল। সালামের স্ত্রী শিফা বেগম রান্না করতে গিয়ে চুলা জ্বালাতে পারছিলেন না। এ সময় তারা বাইরে থেকে আগুন নিয়ে চুলা জ্বালাতে গেলে পুরো ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এ আগুনেই তারা দগ্ধ হয়। পরে এলাকাবাসী গিয়ে ঘরের আগুন নেভানোসহ দগ্ধদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। 

পুলিশের কাটখাল তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক মো. মাসুদ মিয়া জানান, দগ্ধ নয়জনের মধ্যে চার-পাঁচ জনের অবস্থা গুরুতর। তাদের বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি জানান, গ্যাস ব্যবহারে অজ্ঞতার কারণেই এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সিলিন্ডার থেকে যে প্লাস্টিকের পাইপটি চুলায় গেছে। সেটিতে কোনো সমস্যা রয়েছে কি-না, এ বিষয়টি প্রকৃতপক্ষে অনেকে খেয়াল করে না। আর এ অসাবধানতার কারণেই এতগুলো লোক দগ্ধ হয়েছে।

পালাবদল/এমএম


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2020
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১, সিদ্ধেশ্বরী রোড, রমনা, ঢাকা-১২১৭
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১, সিদ্ধেশ্বরী রোড, রমনা, ঢাকা-১২১৭
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]