মঙ্গলবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬
 
দক্ষিণ এশিয়া
‘খুব কষ্ট হচ্ছে’, বন্দিদশায় ওমর আবদুল্লাহর ছবি দেখে মমতা
‘খুব কষ্ট হচ্ছে’, বন্দিদশায় ওমর আবদুল্লাহর ছবি দেখে মমতা





পালাবদল ডেস্ক
Sunday, Jan 26, 2020, 12:59 am
 @palabadalnet

ছ’মাস আগে ওমর যেমন ছিলেন (বাঁ দিকে), এখন তিনি যেমন (ডান দিকে)। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

ছ’মাস আগে ওমর যেমন ছিলেন (বাঁ দিকে), এখন তিনি যেমন (ডান দিকে)। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

শ্রীনগর: চেহারায় সেই ঝকঝকে ভাবটা আর নেই। বরং চোখের কোণে বলিরেখাটা যেন আরও গভীর হয়েছে। বুক ছুঁইছুঁই কাঁচা পাকা দাড়ির মধ্যে হাসিটা টিকিয়ে রেখেছেন বটে, তবে দু’চোখে বিষণ্ণতার ছাপ স্পষ্ট। বন্দিদশা থেকে জম্মু-কাশ্মিরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহর এমন ছবিই এবার সামনে এলো।

উপত্যকা প্রশাসনের তরফে শনিবার ছবিটি প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে, যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। তাতে গাঢ় নীল রঙের জ্যাকেট এবং টুপি পরে বরফের মধ্যে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গিয়েছে ওমরকে। গুঁড়ো গুঁড়ো বরফে দুই কাঁধ ঢেকে গিয়েছে তার। বরফ পড়েছে মাথাতেও। সেই অবস্থাতেই ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে রয়েছেন তিনি।

ছবিটি সামনে আসতেই এদিন তা নিয়ে টুইট করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সদ্য সামনে আসা ওমরের ছবি পোস্ট করে তিনি লেখেন, ‘‘এই ছবিতে ওমরকে চিনতেই পারিনি আমি। খুব কষ্ট হচ্ছে আমার। অত্যন্ত দুর্ভাগ্যের বিষয় যে, আমাদের গণতান্ত্রিক দেশে এমনটা হচ্ছে। এ সব কবে শেষ হবে? ’’

শুধু মমতাই নন, ওমরের ছবিটি দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেন বহু মানুষ। এ বছর মার্চে ৫০-এ পা দেবেন ওমর। কিন্তু ছবিতে তাকে অনেক বয়স্ক দেখতে লাগছে বলে মন্তব্য করেন অনেকে। ছ’মাস নয় ওমরকে দেখে মনে হচ্ছে বন্দিদশায় ৩০ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন তিনি, এমন মন্তব্যও করেন কেউ কেউ। এর আগে, অক্টোবরে ওমর আবদুল্লাহর একটি ছবি সামনে এসেছিল। তবে তখন তাকে এতটা ক্লান্ত লাগেনি বলেও মন্ত্বব্য করেছেন অনেকে।

এ নিয়ে ওমরের দল ন্যাশনাল কনফারেন্সের তরফে কোনো মন্তব্য করা না হলেও, তার পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বন্দিদশা থেকে মুক্তি না পাওয়া পর্যন্ত দাড়ি কাটবেন না বলে পণ করেছেন ওমর।

কেন্দ্রীয় সরকার জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপ করার সিদ্ধান্ত নিলে গত ৫ আগস্ট ওমর আবদুল্লাহকে আটক করা হয়। তার পর ছ’মাস কাটতে চলল। এখনও শ্রীনগরের হরি নিবাসে বন্দি হয়ে রয়েছেন তিনি। উপত্যকার আর অন্য দুই  প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি এবং ওমরের বাবা ফারুক আবদুল্লাহও বন্দি রয়েছেন। ফারুক আবদুল্লাহকে জন নিরাপত্তা আইনে বন্দি করা হয়েছে। গত কয়েক মাস ধরেই তাদের মুক্তির দাবি জানিয়ে আসছেন সমাজকর্মীরা। শুক্রবার মার্কিন সরকারের তরফেও একই আর্জি জানানো হয় ভারত সরকারকে।নির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া কাশ্মিরে বন্দি রয়েছেন যে রাজনীতিকরা, তাদের ছেড়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে বলা হয়। তার পরই এদিন ওমর আবদুল্লাহর ছবি প্রকাশ পেল।

পালাবদল/এমএম


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]