বুধবার ২২ জানুয়ারি ২০২০ ৯ মাঘ ১৪২৬
 
অর্থ-বাণিজ্য
ভারতের রফতানি বন্ধের পর পেঁয়াজের কেজি ২৫০ রুপি হয়েছে নেপালে
ভারতের রফতানি বন্ধের পর পেঁয়াজের কেজি ২৫০ রুপি হয়েছে নেপালে





কাঠমাণ্ডু পোস্ট
Wednesday, Nov 27, 2019, 10:47 pm
Update: 27.11.2019, 10:48:44 pm
 @palabadalnet

কাঠমাণ্ডু: নেপালে বহু মুদির ক্রেতা পেঁয়াজের দাম শুনে বজ্রাহত হওয়ার পর পেঁয়াজ বাদ দিয়ে মুরগির মাংস কিনে ঘরে ফিরতে শুরু করেছেন। কাঠমাণ্ডু উপত্যকায় এক দিনেই পেঁয়াজের দাম ৫০ রুপি বেড়ে কেজি প্রতি ২৫০ রুপিতে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে পেঁয়াজ আর মুরগির মাংসের দাম এখন সেখানে সমান সমান হয়ে গেছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারত থেকে বৈধভাবে আমদানি বন্ধ হয়ে গেছে, এবং এখন বাজারে সবজির একমাত্র সরবরাহ আসছে পাচারের মাধ্যমে।
 
বালখু সবজি ও ফল বাজারের এক ব্যবসায়ী দ্য পোস্টকে বললেন যে, ভারতের সাথে সীমান্তের বিভিন্ন ফাঁকফোকর দিয়ে নেপালে প্রতিদিন ৪০ টনের মতো পেঁয়াজ অবৈধভাবে ঢুকছে। নাম না জানা এই বিক্রেতা বললেন যে, বাজারে এক বস্তা পেঁয়াজও এখন নেই।

বিগত সপ্তাহগুলোতে নেপালের বৃহত্তম সবজি বাজার – কালিমাটি ফ্রুটস অ্যান্ড ভেজিটেবল মার্কেট ডেভলপমেন্ট বোর্ডের হাতে গোনা কিছু সবজির দোকানে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।

ভারতে পণ্যের সঙ্কটের কারণে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময় থেকে নেপালে দরকারি রান্নার উপাদানের দাম বাড়তে শুরু করে। ২৯ সেপ্টেম্বর, ভারত দেশে পেঁয়াজের মজুদ ঠিক রাখার জন্য রফতানি বন্ধ ঘোষণা করে। ফলে, নেপালসহ পুরো এশিয়াতেই পেঁয়াজের সঙ্কট তৈরি হয়। নেপাল পেঁয়াজের জন্য পুরোপুরি আমদানির উপর নির্ভর করে।

বিগত অর্থবছরে নেপাল ভারত থেকে ৫.৬২ বিলিয়ন রুপির পেঁয়াজ আমদানি করেছিল। বাবর মহলের শেজ ক্যারোলিন রেস্তোরাঁর ম্যানেজার সুনিল শ্রেষ্ঠ বললেন, তারা পাইকারি বাজার থেকে ২০০ রুপি কেজি দরে ভারতীয় পেঁয়াজ কিনে আসছেন।

কাঠমাণ্ডুর রেস্তোরাঁ ও হোটেলগুলো পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় খদ্দের, কারণ সেখানে প্রায় সব রান্নাতেই পেঁয়াজ ব্যবহার করা হয়।

ইকোনমিক টাইমস জানিয়েছে, ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা দীর্ঘায়িত হতে পারে। গ্রীষ্মের পেঁয়াজ উৎপাদন বিলম্বিত হওয়ায় এবং নভেম্বরের বৃষ্টিতে পেঁয়াজের উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ভারতের মধ্যে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে।

কালিকাটি ফ্রুটস অ্যান্ড ভেজিটেবল মার্কেট ডেভলপমেন্ট বোর্ডের ডেপুটি ডিরেক্টর বিনায়া শ্রেষ্ঠ বললেন, তারা এখনই বলতে পারছেন না যে, পেঁয়াজের দাম ৩০০ রুপি হবে কি না। তবে দাম যে আরও বাড়বে, সেটা ধারণা করছেন তারা।

তিনি বলেন, “দক্ষিণের প্রতিবেশী দেশ পেঁয়াজের রফতানি বন্ধ করে দিয়েছে, এবং বাজারে হস্তক্ষেপের মতো যথেষ্ট সরবরাহ আমাদের নেই”। তিনি আরও বলেন যে, এই দাম নিয়ন্ত্রণের উপায় নেই।

পালাবদল/এমএম


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]