সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯ ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
 
বিনোদন
‘আমি উগ্র মানবতাবাদী’
‘আমি উগ্র মানবতাবাদী’





এনডিটিভি
Tuesday, Nov 5, 2019, 1:21 pm
 @palabadalnet

পেশাগত ব্যস্ততার মাঝেও বারবার অপর্ণা সেনকে দেখা গিয়েছে সামাজিক ও রাজনৈতিক ইস্যুতে প্রতিবাদ জানাতে।

পেশাগত ব্যস্ততার মাঝেও বারবার অপর্ণা সেনকে দেখা গিয়েছে সামাজিক ও রাজনৈতিক ইস্যুতে প্রতিবাদ জানাতে।

তিনি চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও ক্রমে চিত্র পরিচালকও। কিন্তু নিজের পেশাগত ব্যস্ততার মাঝেও বারবার তাকে দেখা গিয়েছে সামাজিক ও রাজনৈতিক ইস্যুতেও প্রতিবাদ জানাতে। অপর্ণা সেন জানাচ্ছেন, তিনি সব সময়ই ইস্যুভিত্তিক রাজনীতিতে বিশ্বাস করেন এবং নিজেকে ‘উগ্র মানবতাবাদী’ মনে করেন। তার বক্তব্য, তিনি কোনও সংগঠন বা রাজনৈতিক দলের পদক্ষেপ ঠিক বা ভুল হলে তা নিয়ে মন্তব্য করেন। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে তিনি জানিয়েছেন, ‘‘আমি মূলত একজন উগ্র মানবতাবাদী। বিশ্বাস করি ধর্মনিরপেক্ষ আদর্শে। কিন্তু কখনও কোনো রাজনৈতিক দল বা সংগঠনের সমর্থন করিনি কেননা আমি ইস্যুভিত্তিক রাজনীতিতে কেবল মাত্র বিশ্বাস করি।”

অপর্ণা সেন জানাচ্ছেন, ১৯৯১ সালে উদার অর্থনীতিকরণকে তিনি সমর্থন করেছিলেন। আবার ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ইন্দিরা গান্ধির সমর্থন করাকেও তিনি সমর্থন করেছিলেন। কিন্তু ১৯৮৪ সালে ইন্দিরা গান্ধির হত্যার পরে হওয়া শিখদের ওপর প্রতিহিংসা এবং সেই ইস্যুতে রাজীব গান্ধির মন্তব্যকে তিনি সমর্থন করেননি।

তিনি জানাচ্ছেন, ‘‘১৯৯২ সালে বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পড়েও আমি কেঁপে উঠেছিলাম। আমি বলতে চাইছি আমি যেকোনো রাজনৈতির দল বা সংগঠনের সঠিক বা ভুল পদক্ষেপ সম্পর্কে আমার মতপ্রকাশ করি যখন সেটা করা প্রয়োজন মনে করি।''

রাজ্যে বাম শাসনের সময় নন্দীগ্রাম ও সিঙ্গুর ইস্যুতে তৃণমূলের আন্দোলনকে সমর্থন করেছিলেন‌ অপর্ণা। ২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার ক্ষেত্রে যে আন্দোলন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অক্সিজেন জুগিয়েছিল।

গত মাসে মুর্শিদাবাদে এক স্কুল শিক্ষক, তার অন্ত্বঃসত্ত্বা স্ত্রী ও শিশু সন্তানের হত্যার প্রতিবাদে সরব হয়ে জানিয়েছিলেন, ‘‘আমাদের লজ্জা হওয়া উচিত।”

মুসলিম, দলিত ও অন্যান্য সংখ্যালঘুদের গণপিটুনির প্রতিবাদে প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি লিখেছিলেন যে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা, তাদের মধ্যেই ছিলেন অপর্ণা সেন। তিনি জানাচ্ছেন, ‘‘আমি রাজনৈতিক চেতনা নিয়ে জন্মাইনি। আমার জীবনের যাত্রার সমান্তরালে আমার রাজনৈতিক চেতনা গড়ে উঠেছে।''

তিনি আরো বলছেন, কেউ সংখ্যালঘুদের সমর্থনে কথা বললেই তাদের ‘ছদ্ম-ধর্মনিরপেক্ষ' বলা হচ্ছে। এ ব্যাপারে তার স্পষ্ট বক্তব্য, ‘‘কিন্তু আমি দলিতদের হয়ে কথা বলেছি, বাংলাদেশের কাছে ছিটমহলের হিন্দু ও মুসলিম উভয়ের জন্যও বলেছি।''

তিনি জানাচ্ছেন, ‘‘যদি আমি সব বিষয়ে কথা বলতে শুরু করি, আমি একজন পেশাদার প্রতিবাদী হয়ে উঠব, যা আমি নই। আমার আরো অনেক কিছু করার আছে।''

কিন্তু ছবিতে এ নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী নন অপর্ণা সেন। তার সাফ কথা, ‘‘আমি বরং মানুষের মনস্তত্ত্ব নিয়ে আমার ছবি করতে চাই।''

পালাবদল/এমএম


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]