সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯ ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
 
মিডিয়া
৭১ বছরের পথচলা শেষ, স্তব্ধ রেডিও কাশ্মির
৭১ বছরের পথচলা শেষ, স্তব্ধ রেডিও কাশ্মির





টাইমস অব ইন্ডিয়া
Friday, Nov 1, 2019, 10:49 am
 @palabadalnet

নয়া দিল্লি: রেডিও কাশ্মিরের কণ্ঠস্বর রুদ্ধ। পথ চলা শুরু হয়েছিল ১৯৪৮ সালের ১ জুলাই৷ তা থামল ২০১৯-এর ৩১ অক্টোবর৷ 'ইয়ে রেডিও কাশ্মির হ্যায়'- নিয়ন্ত্রণরেখার দু'পারেই সমান জনপ্রিয় শব্দগুলি আর কোনো দিন শোনা যাবে না। বৃহস্পতিবার জম্মু-কাশ্মির ও লাদাখ দু'টি নতুন কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে পথ চলা শুরু করার সঙ্গে সঙ্গেই ৭১ বছর ধরে রেডিওতে কাশ্মিরিয়ত, ইনসানিয়ত আর জামুরিয়াতের ধ্বজা বহনকারী অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা রেডিও কাশ্মির হয়ে গেল ইতিহাস, তার জায়গা নিল অল ইন্ডিয়া রেডিও বা আকাশবাণী৷ ভারত স্বাধীন হওয়ার পর ৭২ বছর আকাশবাণীতে বহু প্রশাসনিক পরিবর্তন হলোেও কোনো দিন রেডিও কাশ্মির নামটির পরিবর্তন করা হয়নি৷ কিন্তু কালের নিয়মে সেই কাজটাও সারা হলোো মোদি সরকারের সিদ্ধান্তে৷ এবার রেডিও কাশ্মিরের পরিবর্তে শোনা যাবে 'ইয়ে আকাশবাণী হ্যায়'৷

রেডিও কাশ্মিরের এভাবে নাম পরিবর্তনকে সমর্থন করতে পারছেন না প্রসার ভারতীর প্রাক্তন সিইও জহর সরকার৷ তার কথায়, 'এটার কোনো প্রয়োজন ছিল বলে আমার মনে হয় না৷ এর মাধ্যমে উপত্যকার সাধারণ মানুষের ভাবাবেগের ওপরে আঘাত হানা হলো৷ এই রেডিও স্টেশনের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে গিয়েছিল কাশ্মিরের মনন৷ নাম পরিবর্তনের আগে সেই দিকটা একবারও ভাবা হলো না৷ বিষয়টি এমন হলো, সব যখন নেওয়া হয়েছে, তখন এটাও বা বাকি থাকে কেন!'

জন্মলগ্ন থেকে শুরু করে বহু তাৎপর্যপূর্ণ অধ্যায়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে রেডিও কাশ্মিরকে, বৃহস্পতিবার নয়া দিল্লিতে সে কথা শোনাচ্ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক উচ্চপদস্থ কর্তা৷ বললেন, 'ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ, ভারত-চীন যুদ্ধ, কার্গিল যুদ্ধ, সীমান্তের উত্তেজক পরিস্থিতি, কোনো সময়েই এই রেডিও স্টেশনের সম্প্রচারে বাধা পড়েনি৷ কাশ্মিরি ও ঊর্দু ভাষায় প্রচারিত এই রেডিও স্টেশন খুব জনপ্রিয় ছিল প্রথম দিন থেকেই৷ 

এই রেডিও স্টেশনটি নিয়ে সংসদে প্রশ্ন করেছিলেন তৎকালীন বিরোধী নেতা অটল বিহারী বাজপেয়ী৷ ১৯৬৬ সালের ২৯ নভেম্বর রাজ্যসভায় বাজপেয়ী জানতে চেয়েছিলেন, আকাশবাণীর অংশ হিসেবে এই রেডিও কাশ্মির তার কার্যাবলী পরিচালনা করে কি না৷ কেন তা আকাশবাণী নামে পরিচিত হবে না, জানতে চেয়েছিলেন বাজপেয়ী৷ সেই সময়ে কেন্দ্রের তরফে জানান হয়েছিল, আকাশবাণীর প্রত্যক্ষ পরিচালনায় এই রেডিও স্টেশনটি কাজ করে। এর নাম পাল্টানোর কথা ভাবা হয়নি, কারণ জন্ম লগ্ন থেকেই তা ব্যাপক জনপ্রিয়৷ এর সঙ্গে কাশ্মিরের মানুষের ভাবাবেগ জড়িত, প্রসার ভারতীও এই স্টেশনটির জন্য কোনো অনুষ্ঠান তৈরির ক্ষেত্রে সেটিকে বিশেষ গুরুত্ব দিত৷ কাশ্মিরে যতবার প্রাকৃতিক বিপর্যয় হয়েছে, প্রতিবার এই রেডিও স্টেশনটির মাধ্যমে ত্রাণ ও উদ্ধার কার্যে সহায়তা করা হয়েছে৷ প্রতি ঘন্টায় বিশেষ বুলেটিন সম্প্রচার করা হত, যা উপত্যকায় ত্রাণ ও উদ্ধারে সহায়তা করত৷ ১৯৪৮ সালে জম্মু-কাশ্মিরের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ আবদুল্লার হাতে উদ্বোধন হওয়া রেডিও কাশ্মিরের জন্ম গৌরবোজ্জ্বল হয়েছিল।

পালাবদল/এমএ


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]