মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
 
সারাবাংলা
নিরক্ষর ও অস্বচ্ছল নারীদের প্রেরণা সৈয়দপুরের জাহানারা বেগম
নিরক্ষর ও অস্বচ্ছল নারীদের প্রেরণা সৈয়দপুরের জাহানারা বেগম





নীলফামারী প্রতিনিধি
Wednesday, Oct 30, 2019, 1:07 am
Update: 30.10.2019, 1:11:10 am
 @palabadalnet

নীলফামারী: প্রত্যন্ত  অঞ্চলের অক্ষরজ্ঞানহীন ও অস্বচ্ছল নারীদের আলোর পথের দিশারী হয়ে উঠেছেন নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের খালিশা বেলপুকুর গ্রামের জাহানারা বেগম (৫০)।

তিন সন্তানের জননী জাহানারা দারিদ্রতার কারণে খুব বেশি পড়াশোনা করতে পারেননি। দশম শ্রেণিতে পড়াকালীন তার বিয়ে হয়ে যায়। এরপর আর পড়াশোনার সুযোগ হয়নি। স্বামী-সংসার নিয়েই ব্যস্ত থাকতে হয়েছে তাকে। 

পুরুষতান্ত্রিক সমাজে অন্যসব নারীর মতো তাকেও মাথা নিচু করে থাকতে হয়েছে। কিন্তু ধীরে ধীরে তিনি সোচ্চার হয়ে উঠেন। সময়ের সাথে স্বনির্ভর অর্জন করেন। তারপর আর পিছনে ঘুরে তাকাতে হয়নি জাহানারাকে। এখন খালিশা বেলপুকুর গ্রামের অস্বচ্ছল ও নিরক্ষর নারীদের এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা তিনি। 

জাহানারা বেগম এখন তার এলাকায় বাল্যবিবাহ রোধে কাজ করে যাচ্ছেন। বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে গ্রামবাসীকে অবহিত করার চেষ্টা চালাচ্ছেন। সেই সাথে গ্রামের মেয়েদের উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত গড়ে তুলতে অভিভাবক সমাজকে জোর আহবান জানাচ্ছেন। সেই সাথে নিরক্ষর মুক্ত গ্রাম গড়তে অক্ষরজ্ঞানহীন বয়োজ্যেষ্ঠ নারীদের মাঝে তিনি অক্ষরদান কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। এর ফলে এখন খালিশা বেলপুকুর গ্রামে সাক্ষরতার হার বৃদ্ধি পেয়েছে। 

সরেজমিনে খালিশা বেলপুকুর গ্রামের সেতুবন্ধন পাঠাগারে গিয়ে দেখা যায়, জাহানারা বেগম পাঠাগারে আগত গ্রামের শিশু-কিশোরদের মাঝে বই পড়ার প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করছেন। তিনি নিজেও এই পাঠাগারে নিয়মিত এসে বই পড়েন। তার মতে, নিজেকে একজন সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হলে বই পড়ার বিকল্প নেই।

এছাড়াও তিনি গ্রামের নারীদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে ২০১৮ সালে সেতুবন্ধন মহিলা উন্নয়ন সমিতি শুরু করে। বর্তমানে এই সমিতির সদস্য সংখ্যা ৫০ জন।  জাহানারা বেগম এই সমিতির সভাপতি। এই সমিতির মাধ্যমে গ্রামের নারীরা যেমন তাদের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র স য় একত্রিত করতে পারছেন। তেমনি সমিতি থেকে ঋণ নিয়ে মোটা অংকের টাকা উৎপাদনমুখী কাজে লাগাতে পারছেন। পাশাপাশি সমিতির মাধ্যমে তিনি পাড়া-মহল্লায় মাদক ও বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি করছেন। এর ফলে জাহানারা বেগমের হাত ধরে পথচলা সেতুবন্ধন মহিলা উন্নয়ন সমিতি এখন গ্রামের নারীদের ভাগ্য উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে। 

জাহানারা বেগমের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমাদের দেশের গ্রামাঞ্চলের সমাজ ব্যবস্থার কারণে নারীরা এখনো অনেক পিছিয়ে। দেশকে এগিয়ে নিতে হলে যাবতীয় উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নারীদেরও ভূমিকা রাখতে হবে। এজন্য নারীদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত হওয়া প্রয়োজন। আর এই লক্ষ্যেই তিনি কাজ করে যাচ্ছেন বলে জানান।

নীলফামারী মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রাফিয়া ইকবাল বলেন, জাহানারা বেগম এই এলাকার নারীদের সংগঠিত করে নিরক্ষরতা দূরীকরণ, বাল্য বিবাহ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধ সহ বিভিন্ন সেবামূলক  কাজ  করে যাচ্ছেন। 

পালাবদল/এমএম



  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]