বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ১ কার্তিক ১৪২৬
 
রাজনীতি
আবরারের খুনি ছাত্রলীগ নেতাদের বহিষ্কার আইওয়াশ: জামায়াত
আবরারের খুনি ছাত্রলীগ নেতাদের বহিষ্কার আইওয়াশ: জামায়াত





নিজস্ব প্রতিবেদক
Tuesday, Oct 8, 2019, 2:58 pm
 @palabadalnet

ঢাকা: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যার ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে জামায়াতে ইসলামী। সেই সঙ্গে আবরারের খুনি ছাত্রলীগ নেতাদের সংগঠন থেকে বহিষ্কার আইওয়াশ মাত্র।

সংগঠনটির সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদকে ছাত্রলীগ ক্যাডাররা নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছে। এ ঘটনার নিন্দা জানানোর কোনো ভাষা নেই।’

তিনি বলেন, ‘চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, দুর্নীতিবাজ ছাত্র নামধারী ছাত্রলীগ ক্যাডারদের অপরাধের মাত্রা সীমা ছাড়িয়ে গেছে। দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাত্রলীগ ক্যাডারদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে। সরকারের সমালোচনা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় আবরার ফাহাদের মত নিরীহ নিরপরাধ মেধাবী ছাত্রকে হত্যার মাধ্যমে ছাত্রলীগ প্রমাণ করেছে যে, শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জান-মালের কোনো নিরাপত্তা নেই। ইতোপূর্বে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত কোমলমতি স্কুল শিক্ষার্থী এবং কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী সাধারণ শিক্ষার্থীরাও ছাত্রলীগের হামলা থেকে রেহাই পায়নি। ছাত্রলীগের খুন, ধর্ষণ, সন্ত্রাসী কার্যক্রম, চাঁদাবাজি, টেন্ডার বাণিজ্য অতীতের সব রেকর্ড ভঙ্গ করেছে। ’

সরকারের নানা সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে জামায়াত নেতা বলেন, লাগামহীন চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি ও দুর্নীতির কারণে ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বহিষ্কৃত হওয়ার পরেও মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে হত্যার ঘটনা প্রমাণ করে যে, তাদের বহিষ্কার সত্ত্বেও ছাত্রলীগ ক্যাডারদের চরিত্র একটুও বদলায়নি। আবরারের খুনিদের বহিষ্কার আইওয়াশ মাত্র। মূলত দলীয় আশকারা পেয়েই ছাত্রলীগ সারা দেশের শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে এ ধরনের নৈরাজ্যকর ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করেছে।’

প্রসঙ্গত রোববার দিবাগত রাত ৩টার দিকে বুয়েটের শেরেবাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জানা যায়, ওই রাতেই ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে ডেকে নিয়ে পেটান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা।

পুলিশ জানিয়েছে, আবরারের দেহে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ণ পাওয়া গেছে। তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক জানিয়েছেন, তার লাশে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

আবরার বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭তম ব্যাচ) শিক্ষার্থী ছিলেন।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ১৯ জনকে আসামি করে সোমবার সন্ধ্যার পর চকবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা করেন নিহত আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ। এ ঘটনায় বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বুয়েট ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়েছে ১১ জনকে।

পালাবদল/এসএ


  এই বিভাগের আরো খবর  
  সর্বশেষ খবর  
  সবচেয়ে বেশি পঠিত  


Copyright © 2019
All rights reserved
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]
সম্পাদক : সরদার ফরিদ আহমদ
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৩৭৩/৩২ ফ্রি স্কুল স্ট্রিট, হাতিরপুল, কলাবাগান, ঢাকা-১২০৫
ফোন : +৮৮-০১৮৫২-০২১৫৩২, ই-মেইল : [email protected]